বাড়িতে শ্রাদ্ধের তোরজোড়,অ্যাম্বুলেন্স থেকে করোনা জয় করে নামলেন ‘মৃত’

0
1822
ইমেজ সোর্স - গুগল

কলমে কলকাতা ডেস্ক – খবর এসেছিল রোগী করোনাতে মারা গেছেন। দূর থেকে ভিডিও কলে দেখানো হয়েছিল মরদেহ। সেই মতোই আজ শনিবার বাড়ির ছাদে আয়োজন করা হয়েছিল শ্রাদ্ধের। শুক্রবার রাতে বাড়িতে আত্মীয় সজনের ভীর। এরই মাঝে বারাসাতের এক বেসরকারি নাম্বার থেকে এলো ফোন। ফোনে জানানো হল আপনাদের রোগী সুস্থ হয়ে গেছে। কিছুক্ষনের মধ্যেই অ্যাম্বুলেন্সে করে বাড়ি ফিরবেন। এই কথা শুনেই থ হয়ে গেলো ছেলে। শোকের বাড়িতে এক অদ্ভুত পরিস্থিতি।কেউ আনন্দে মাতোয়ারা কেউ বা আবার পুরোই থ। তাহলে কার মরদেহ দেখানো হয়েছিল তাদের?

See more

সবাই অপেক্ষা করতে থাকল রোগী বাড়ি আসার। অবশেষে প্রায় ৪০ মিনিট পর দেখা গেলো সত্যি সত্যিই অ্যাম্বুলেন্স থেকে নামছেন বছর ৫৫-র শিবনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়।  বাড়ির ছাদে তারই শ্রাদ্ধের প্যান্ডেল এদিকে অ্যাম্বুলেন্স থেকে নেমে হাটতে হাটতে বাড়ি ফিরছেন তিনি। অদ্ভুত এক পরিস্থিতির সম্মুখীন হল বন্ধ্যোপাধ্যায় পরিবার।

শিবনাথ বাবুকে ১১ ই নভেম্বর ভর্তি করা হয় হাসপাতালে। ১৩ ই নভেম্বর তার মৃত্যুর খবর জানানো হয় বাড়িতে। কিন্তু শিবনাথ বাবু তো জীবিত । তাহলে কার মৃতদেহ দেখানো হয়েছিল বাড়িতে? সৎকার ই বা করা হয়েছিল কার? জানা গেলো চাঞ্চল্যকর তথ্য। আসলে জিনি মারা গিয়েছিলেন তিনি বিড়াটির বাসিন্দা  মোহিনীমোহন গোস্বামী। হাসপাতালের তরফ থেকে  মোহিনীমোহন বাবুর পরিবারকে জানানো হয় তিনি সুস্থ হয়ে গেছেন। কিন্তু এদিন এ্যাম্বুলেন্স বিড়াটির দিকে জেতেই শিবনাথ বাবু জানান তাঁর বাড়ি খরদহে। তখনি ব্যাপার টা পরিস্কার হয় সকলের কাছে। এদিকে বন্দ্যোপাধ্যায় বাড়িতে যেমন বাবাকে ফেরার আনন্দ তেমনই গোস্বামী বাড়িতে বাবাকে হারানোর যন্ত্রণা । এরকম একটি মারাত্মক ঘটনাই চাঞ্চল্য ছরিয়েছে এলাকায়। স্বাস্থ্য দপ্তর রিপোর্ট চেয়েছে উত্তর ২৪ পরগনার জেলা প্রসাসনের কাছ থেকে। যার ভুলে এমন ঘটনা ঘটেছে তাঁর শাস্তি হবে বলে জানা গেছে।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here