নিজের ছেলের বউকেই বিয়ে করলেন বাবা, কিন্তু কেন!!

0
1031

৬৫ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ নিজের ছেলের বিয়ের জন্য ঠিক করা একজন ২১ বছর বয়সী মেয়েকে বিয়ে করেছেন। এই রকম ঘটনায় আপনিও রীতিমত হতবাক পড়বেন। সম্প্রতি বিহারের পাটনার সমস্তিপুর এলাকায় ঠিক এমনই একটি অদ্ভুত ঘটনা ঘটেছে।

See more

প্রত্যক্ষদর্শী থেকে জানা যায়, ৬৫ বছরের যে ব্যক্তি বিয়ে করেছেন তার নাম হলো রোশান লাল। এই ব্যাক্তি বর্তমানে পাটনা শহরেই থাকেন। আসলে তিনি তাঁর নিজের ছেলের জন্য পাত্রী খুঁজছিলেন। তার পরে ২১ বছর বয়সী স্বপনা নামের একটি মেয়ের সাথে তার ছেলের বিয়ের কথাও পাকাপাকি হয় যায়। জানা গেছে, পাত্রী স্বপ্না একই এলাকাতেই থাকেন।

খবর পাওয়া যায়, কথা পাকাপাকি হওয়ার পরে, দুই পরিবারের মতের ভিত্তিতেই রোশান লালের ছেলের সাথে স্বপ্নার বিয়ের দিন ও ঠিক হয়ে গিয়েছিল। কথা মতোই ধুমধাম করে বিয়ের প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছিল।

বিয়ের দিন আমন্ত্রিত অতিথিরা বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন । নতুন বিয়ে হবে এই আশাতে স্বপ্না তাঁর পাত্রের জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করতে থাকে। কিন্তু শেষমেষ আর পাত্র বিয়ে করতে আসেননি। পরে তাঁদের বাড়ির লোক খোঁজাখুঁজি করলে জানতে পারে যে, পাত্র তার প্রেমিকাকে নিয়ে পালিয়ে গিয়েছেন।

প্রথমে ছেলে এবং মেয়ের পরিবারের কেউই এই বিষয়টি জানতেন না। পরবর্তীতে পাত্র এভাবে প্রেমিকা নিয়ে পালিয়ে যাওয়ায় বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা অসংখ্য অতিথির সামনে দুই পক্ষের পরিবারই রীতিমত লজ্জায় পড়ে যান ।

একপর্যায়ে পাত্রের বাবা রোশান লাল কনের মা-বাবাকে জিজ্ঞাসা করেন যে, এখন কি উপায়? স্বপ্নার মা-বাবা নিজেদের সম্মানের কথা ভেবে রোশন লালকে বলেন যে, কোনও মতেই বিয়ের অনুষ্ঠান বন্ধ করা যাবে না। অবশেষে পাত্রীর বাবা-মা তাঁর মেয়েকে বিয়ে করার জন্য রোশান লালকে অনুরোধ করেন।

রোশান লাল এই কথা শুনে রীতিমতে চিন্তায় পড়ে যান, প্রথমে তিনি এই প্রস্তাবে রাজি হননি, কিন্তু পরে এই ৬৫ বছরের রোশন লাল ২১ বছরের স্বপ্নাকে বিয়ে করতে রাজি হয়ে যান। এরকম একটি পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়ে বিয়েতে উপস্থিত থাকা অতিথিরাও হতবাক হয়ে যায়।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here