দেশের সর্বত্র উঠে যাচ্ছে স্থায়ী চাকরি ব্যাবস্থা!আসছে নতুন বিল!!

0
4500

দেশের কোথাও থাকবেনা পাকাপাকি চাকরি ব্যাবস্থা! সে বেসরকারি হোক বা সরকারি! নতুন শ্রম বিল এনে সেই ব্যাবস্থাই করতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। সমস্ত চাকরীতে এবার পাকাপাকি বা স্থায়ী চাকরির বদলে মেয়াদ ভিত্তিক চাকরি ব্যাবস্থা শুরু হবে।

See more

গত কয়েকদিন ধরে ফেসবুকে একটা পেপার কাটিং ভাইরাল হয়েছে তার সূত্রেই সেখানেই এই খবর টি ফুটে উঠেছে!

গত বুধবার কেন্দ্রীয় সরকার চাকরি ব্যাবস্থায় এই নতুন আইন যোগ করে এই ব্যাবস্থার শুরু করেছে। শীতকালীন অধিবেশনে সাংসদে পেশ করা হবে এই বিল, তারপর ফাইনাল সিদ্ধান্ত হেওয়া হবে এই ব্যাপারে।

এর আগে দেশে ৪৪ বার শ্রম আইন পাশ হয়েছে। মজুরি বৃদ্ধি বারবার করা হয়েছে। এর পরে আবার একবার শ্রম আইন পাশ করিয়ে দেশে চাকরির সংজ্ঞা পাল্টে দেওয়া হচ্ছে।দেশে সমস্ত আইন লঙ্ঘন করে আজও বেসরকারিস সংস্থায় চুক্তি ভিত্তিক অস্থায়ী চাকরি চলছে, এর মধ্যে এই নতুন আইন দেশবাসীর ঘুম কেড়ে নিয়েছে!

সরকারি ব্যাবস্থায় শুধু মাত্র স্থায়ী চাকরি ব্যাবস্থা বর্তমান আছে, কিন্তু এই নতুন নিয়ম যদি পাশ হয়ে যায় সেক্ষেত্রে সরকারি খেত্রেও বাতিল হয়ে যাবে স্থায়ী চাকরি ব্যাবস্থা! সেই লক্ষে দ্রুত এই আইন পাশ করার লক্ষ্যে ছুটছে সরকার।

শিল্প সংস্থান এ শ্রমিক দের দাবি বা অধিকার নিয়ে যে যে আইন আছে সেগুলোর মান কমিয়ে তাদের অধিকার অনেকটা খর্ব কর হয়েছে অনেক আগেই। তারা পরপর অনেকবার এই আইনের বিরুদ্ধে বিরোধিতা করেছে। কিন্তু তা স্বত্বেও তাদের আপত্তি উড়িয়ে দিয়ে সংসদে বিল পাশ করতে চলেছে কেন্দ্র।

এই বিল এর প্রধান লক্ষ হল সারা দেশে স্থায়ী মেয়াদ ভিত্তিক চাকরি ব্যাবস্থা প্রচলন করা। তা হবে ৩মাসঃ থেকে ৬ মাস। বর্তমানে ঠিকাদারি ব্যাবস্থায় সরকারি ও বেসরকারি সংস্থায় নিয়োগ হয় সেই ব্যাবস্থা খর্ব করবে সরকার।

তবে ৬মাসের জন্যে চুক্তি হলেও তাদের জন্যে যে সামাজিক সুরক্ষা পাওয়ার তা তারা অবশ্যই পাবেন। এর সাথে স্বল্প মেয়াদের চাকরির সাথে সাথে সহজে ছাটাই ব্যাবস্থা ও চালুর ব্যাবস্থা করবে।

গত বছর মোদি সরকার ও কেন্দ্রীয় সরকার অধিকৃত সংস্থায় এই বিল লাঘু করার কথা তোলা হয়। এই অনুসারে কেন্দ্রীয় সরকার এই বিল পাশ করার জন্যে উদ্যোগী হয়। বিভিন্ন রাজ্য এই ব্যাবস্থা চালু করলেও শেষ অবধি তা সম্ভব হয়নি।

এই বিল পাশ হয়ে গেলে সরকারি ব্যাবস্থায় স্থায়ী ব্যাবস্থার অবসান ঘটিয়ে স্থায়ী চুক্তি ভিত্তিক চাকরির ব্যাবস্থা অবাধ হয়ে যাবে। সেই সাথে হবে অবাধ ছাটাই।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here