আরো পড়ুন

সমাজসেবক অতিন্দ্র চক্রবর্তী। কিছুদিন আগে রানু মন্ডলের গানের ভিডিয়ো পোস্ট করেল ফেসবুকে। রাতারাতি ভিডিয়ো ভাইরাল হয়। সেই ভিডিয়ো পৌছয় হিমেশ রেশমিয়ার কাছে। তিনি রানু মন্ডল কে গানের সুযোগ দেন। রানু পরপর ৩টি গান রেকর্ড ও করেন। অতিন্দ্র তারপর এক সাক্ষাতকারে বলেন আমি রানুর মত এরকম আরও প্রতিভা কে সবার সামনে আনতে চাই। আমি ফেসবুকে সোশ্যাল ওয়ার্কার অতিন্দ্র বলে এক ক্যাম্পএন চালাই। এর মাধ্যমেই এরকম মানুষদের হাইলাইট করতে চাই।

আরো পড়ুন

এবার উঠে আসে আসল প্রশ্ন। কিছুদিন আগে রানুর মেয়ে স্বাতী মন্ডল দাবি করেন মায়ের টাকা আত্মসাৎ করছেন অতিন্দ্র। খলাখলি মিডীয়া কে জানান তিনি। সেই কথা মিডিয়া উড়িয়ে দেয়। কিন্তু আজকের এই ভিডিয়ো বদলে দিলো সবার নজর। সত্যি কি তেমন টাই ঘটছে?

রানুর ইন্টারভিউর জন্যেও পয়সা হাঁকছেন অতীন্দ্র বাবু ..

প্রথম দিনেই বলেছিলাম "চোরের মায়ের বড় গলা" ….প্রথম দিনেই বলেছিলাম পাগলী সাজিয়ে মানুষের সহানুভূতি আদায় করে শুধুমাত্র কারোর ট্যালেন্ট কে তুলে ধরা হচ্ছে না, যেটা হচ্ছে সেটা হলো বুদ্ধিদীপ্ত ব্যবসা …শর্মিলা শোহাউজের এই ভিডিওটিই সব প্রশ্নের উত্তর দিয়ে দিলো..মন থেকে অনেক অনেক ধন্যবাদ এই শর্মিলা শোহাউজ ইউটিউব চ্যানেলটিকে মানুষের চোখ খুলে দেবার জন্য ….অতীন্দ্র বাবু নিজেকে সমাজসেবী হিসেবে প্রচেষ্টা করে যে ব্যবসার ফাঁদ পেতেছেন সেটা অনেক মানুষই বুঝে ছিলেন প্রথমেই, রানু দেবী কে কখনো অসুস্থ, কখনো পাগলী, কখনো ভিখারি বানিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় সহানুভূতি তৈরী করে আদতে ভাইরাল করছিলেন ভবিষ্যতে পয়সার ফাঁদের জন্য, সেটা অনেকেই বুঝেছিলেন…. কিভাবে সাহস হয় এই অতীন্দ্র বাবুর, আজ রানু দেবীর ইন্টারভিউর জন্য পয়সা চাইছেন ? এমন কি রানু মন্ডল প্রসঙ্গে অতীন্দ্র বাবু নিজে ইন্টারভিউ দিলেও পয়সার প্রসঙ্গ টানছেন…. মানে একজন সমাজ সেবী কিভাবে সমাজ সেবা করছেন সেটার ইন্টারভিউ নিতে হলেও পয়সা দিতে হবে …. হাই রে আমার সমাজ সেবী .. পৃথিবীতে কোথাও কোনোদিন শুনেছেন ? কোনো সংবাদমাধ্যম অথবা চ্যানেলে ইন্টারভিউর জন্য কোনো সেলিব্রিটি পয়সা চেয়েছে? সম্ভব না হলে হয়তো কোনো সেলিব্রিটি কোনো চ্যানেলে ইন্টারভিউ না দিতেই পারে, কিন্তু বাজারে দর দেখিয়ে লিস্টে নাম লেখানোর জন্য পয়সা আদায়, এটা কোন ধরনের সমাজ সেবা ? আমি অনেক আগেই বলেছিলাম, যত ইচ্ছে ব্যবসা করুন , যেভাবে ইচ্ছে ব্যবসা করুন , শুধুমাত্র সমাজ সেবার নামে নোংরা ব্যবসা বন্ধ করুন….রানু মন্ডলের মেয়ে যখন দাবি করেছিলেন, এই অতীন্দ্র বাবু সব পয়সা আত্মসাৎ করছে, সেই খবর কিছু নিউজ চ্যানেলে পাবলিশ করেছিল, জল উল্টো স্রোতে বইছে দেখেই এই অতীন্দ্র বাবু তেড়ে ফুঁড়ে রানু মন্ডল কে নিয়ে লাইভ এসে নিউজ চ্যানেল গুলো কে হুমকি দেয়….কি ভেবেছিলেন অতীন্দ্র বাবু ? এইভাবে হুমকি দিয়ে মানুষের মুখ বন্ধ করে দেবেন ? আমি প্রথম দিনেই বলেছিলাম, সত্যিকারের সমাজ সেবী রা নিজের নামের আগে সমাজ সেবী ট্যাগ লাগিয়ে কখনো পেজ ওপেন করে না, কিন্তু ওনার লক্ষ্যই হচ্ছে এমন ১০ টা রানু মন্ডলের মতো মানুষ কে কাজে লাগিয়ে নিজের স্বার্থ সিদ্ধি করা ….সমাজ সেবার নামে এমন ১০ টা অশিক্ষিত রানু মন্ডলের মাথায় হাত বুলিয়ে নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠা করা ….ট্যালেন্টেড মানুষের ট্যালেন্ট কে প্রকাশ করার জন্য পেজ ওপেন করেছেন তারপর ওনার পেজে কারোর গানের ভিডিও প্রকাশ করলেও ভিডিওর মাঝে নিজের নাম জুড়ে দেন "অতীন্দ্র চক্রবর্তী" আর গায়কের নাম দেন শুধুমাত্র ক্যাপসেনে, মানে আসলে ওনার আসল লক্ষ্যই হলো নিজের নাম টা প্রতিষ্ঠা করা….আগেই বলেছিলাম, ইনি সোশ্যাল মিডিয়ায় রানু কে নিয়ে মানুষের মনে সহানুভূতির খেলা খেলে আসলে নিজের ব্যবসা করছেন, সমাজ সেবার নামে রানু সেবা করছেন, আর সোশ্যাল ওয়ার্কারের নামে পার্সোনাল ম্যানেজারের কাজ করছেন ….ভিডিওটিতে অতীন্দ্র বাবুর পুরো ফোন রেকর্ডিং টা শুধু একবার শুনুন, ভুলে যাবেন ইনি সমাজসেবী ? নাকি একজন অহংকারী পার্সোনাল ম্যানেজার কাম ব্যবসায়ি ? কি ভাবে নিজের ভাবমূর্তি প্রকাশ করলো এই স্বনামধন্য স্বঘোষিত সমাজসেবী ? প্রথম দিনেই বলেছিলাম, আমরা যা দেখছি পুরোটাই একটা খেলা হচ্ছে, আমাদের মনে সহানুভূতির সৃষ্টি করে রানু মন্ডল কে আরও বেশি ভাইরাল করা হচ্ছে আর বাজারে রানুর দর বাড়ানো হচ্ছে….দর হাজার হোক বা লক্ষ, আমার কোনোই সমস্যা নেই, ব্যবসা করুন, ব্যবসা বাড়ান, আমার কোনোই সমস্যা নেই….শুধুমাত্র সমাজ সেবার নামে এই নোংরা ব্যবসা টা করবেন না ….ব্যবসা এখন এতটাই প্রতিষ্ঠিত, আজ রানুর ইন্টারভিউর জন্যেও মোটা টাকা হাঁকছেন….ইন্টারভিউর জন্যেও পয়সা চেয়ে নিজের ভাবমূর্তির প্রকাশ করলেন না শুধু, ফোনে আপনি যে সুরে কথা বললেন, একজন বোকাও বুঝে যাবে কিভাবে আপনি সমাজ সেবার নামে পয়সার ফাঁদ পেতেছেন…. সমাজ সেবার নামে আপনি কলঙ্ক….আরোও ভদ্রভাবে বলছি, যেভাবে আপনি এতো মানুষের সহানুভূতির সাথে খেললেন, আপনি মানুষ শব্দটির কলঙ্ক …. লেখা – সৌরভ দত্তVideo Source : Sharmila Showhouse

Posted by Sourav Dutta on Wednesday, September 4, 2019

কিছুদিন থেকেই ফেসবুকে ভাইরাল রানু মন্ডল, এবং তার প্রসঙ্গে উঠে এসেছে অতিন্দ্র চক্রবর্তী ও। এখন অতনু কে নিয়েই সবথেকে বড় গসিপ উঠছে। কিছুদিন থেকেই ফেসবুকে ভাইরাল যে রানু মন্ডলের মেয়ে মিডিয়া কে জানিয়েছে অতিন্দ্র চক্রবর্তী রানু মন্ডলের নামে ইন্টারভিউ এর জন্যে টাকা তুলছেন অতিন্দ্র চক্রবর্তী।

কিছুদিন আগেই অতিন্দ্র এক লাইভ ভিডিয়ো তে বলেন যে মিডিয়া তার নামে গুজব রটাচ্ছে যে তিনি রানু মন্ডলের টাকা নিয়ে আত্মসাৎ করেছেন, তিনি তাদের বিরুদ্ধে আইনি মামলা করবেন। কিন্তু হিক তার পরের দিন ে ঘটে গেল এই কান্ড।

শর্মিলা শ হাউস থেকে প্রতিনিধি ঐশী অতিন্দ্র চক্রবর্তী কে ফোন করেন যে তারা রানু মন্ডলের ইন্টারভিউ নেবে। তার জন্যে সময় বের করে যেন অতিন্দ্র তাদের জানান। তারা সেভাবেই তাদের ইন্টারভিউ নেবেন।

অতিন্দ্র চক্রবর্তী এই প্রসঙ্গে বলেন যে রানু মন্ডলে এখন সেলেব্রেটি, তার ইন্টারভিউ নিতে হলে তাকে কিছু পারিশ্রমিক দিতে হবে। প্রগ্রামের জন্যে তিনি ১ লাখ টাকা নেন। এবং ইন্টারভিউ এর জন্যেও কম বেশি কিছু দিতে হবে।

ইন্টারভিউ এর আসল কারন হল কোনও মানুষের উঠে দাঁড়ানোর আসল ঘটনা জেনে তাকে প্রোমোশন করানো। যাতে তিনি আরো মানুষের কাছে পৌছতে পারেন। শর্মিলা শো হাউস বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গের সমস্ত সুপার স্টার দের ইন্টার্ভিউ নিয়েছেন। এবং সেই সুপার স্টার রাও সাচ্ছন্দে তাদের ইন্টারভিউ তে ধরা দিয়েছেন। তাদের কাছে টাকা চাওয়া টা কিরকম সমাজসেবার মধ্যে পৌছায়???

ভিডিয়ো ক্রেডিট- শর্মিলা শো হাউস।

আরো পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here